গবেষণাপত্র থেকে বই

From a Thesis to Your Title

গবেষণাপত্র বা থিসিস কী? একটি বইয়ের সঙ্গে তার পার্থক্য ঠিক কোথায়? এসব না ভেবে, নিছক গবেষণাপত্রের পেজ ফরম্যাটিং বদলে কভার এঁকে ছাপিয়ে নিলেই তা বই হয়ে ওঠে না। গবেষণাপত্রের চেয়ে বই অনেক সার্বজনীন, অনেক সজীব। তাকে তার প্রাপ্য যত্নটুকু দিন।
প্রয়োজনে আমাদের সঙ্গে কথা বলুন।

Moondes_08-10-2020-1_04 - Copy.jpg

ভাষা

সহজ, সুন্দর, অথচ গভীর

সাধারণত গবেষণাপত্রের ভাষা হয় কেতাবি (academic). একাডেমিক ভাষা অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বেশ নিরস, প্রসাদগুণহীন। (অবশ্যই কিছু ব্যতিক্রম রয়েছে।) ফলত সকলের কাছে সুখপাঠ্য হয়ে না ওঠায় বই হিসেবে তার তেমন আদর থাকে না। একে বলে Readability Issue of a Text. অধিক সংখ্যক পাঠকের কাছে পৌঁছতে হলে গবেষণাপত্রটিকে হয়ে উঠতে হবে একটি সুলিখিত স্বতঃস্ফূর্ত প্রবন্ধের বই।

Moondes_08-10-2020-1_04.jpg

সম্পাদনা

আপনার বইয়ের সবচেয়ে বড়ো বন্ধু

লেখক নিজের গবেষণার বিষয়ে সমস্ত কিছু জানেন। পাঠক জানেন না। ফলত অনেক ফাঁক ভরাট করার কথা নিজে থেকে খেয়াল পড়ে না লেখকের। এর জন্য প্রয়োজন একজন যোগ্য সম্পাদকের যিনি সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তির মতো কোথায় কোথায় লেখকের আরও স্পষ্ট হওয়া প্রয়োজন, সেটি ধরিয়ে দেবেন। একজন সৎ ও যোগ্য সম্পাদকই আপনার বইয়ের সবচেয়ে বড়ো বন্ধু।

Moondes_08-10-2020-1_04 - Copy (2).jpg

পাঠক নির্বাচন

সঠিক পাঠকের কাছে পৌঁছন

প্রথমেই ভাবা প্রয়োজন বইটির পাঠক রূপে কাদের কল্পনা করছেন লেখক। শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট বিষয়ের বোদ্ধারা, নাকি সকল স্তরের পাঠকগণ। এর ওপর নির্ভর করে আমূল বদলে যাবে বইয়ের নির্মাণ – সূচিপত্রের অধ্যায়ের নাম থেকে লেখার ভাষা, এমনকি প্যারাগ্রাফ বিভাজনও নির্ভর করে বইয়ের ধরনের ওপর। বিষয়বস্তুর গভীরতা ও তাৎপর্য অক্ষুণ্ণ রেখেই একটি বইকে যথাসম্ভব অধিক পাঠকের কাছে পৌঁছে দেওয়াই আমাদের অভিলাষ।

Moondes_08-10-2020-1_01.jpg

সজ্জা

হাতে নিলেই আনন্দ

বইয়ের মাপ থেকে বইয়ের প্যারাগ্রাফের মাপ, একেকটি অধ্যায় কতখানি দীর্ঘ হলে পাঠক শেষ ও শুরুর মেলবন্ধন ঘটাতে পারবেন মনে মনে, কীভাবে সাজানো হবে সূচিপত্র, বইয়ের লেখা, ব্লার্ব – এই সমস্তই নির্ভর করে বইয়ের নিহিত বস্তুর ওপর। পুরো বই পড়ে তারপর সেটিকে নিয়ে চিন্তাভাবনা করে সাজিয়ে তোলার শ্রম সচরাচর বাংলা প্রকাশনাজগৎ করে না। আর, এখানেই আমরা সকলের চেয়ে আলাদা।

Moondes_08-10-2020-1_03.jpg

সার্বিক রূপ

মসৃণ এক যাত্রাপথ

ভূমিকা (Introduction), Literature Survey, এবং আপনার গবেষণা – প্রয়োজন এই তিনটি অংশের সযত্ন সেতুবন্ধন। পড়ে চলার যাত্রাপথটা যেন পাঠকের কাছে মসৃণ হয়। একে বলে কুশনিং (Cushioning). আমাদের প্রকাশনা সম্পাদকের তৈরি করা কপিটি নিয়ে, কয়েকজন পাঠককে পড়িয়ে মতামত নিয়ে, প্রয়োজন মতো পরিবর্তন করে এই বিষয়টির যথাযোগ্য প্রকাশ ঘটায়।